বিশ্বকাপের আগেই ট্রফি জিতে নিলো বাংলাদেশের মুস্তাফিজ ,মিরাজ, মোমিনুল ও সাব্বির

ক্রিকেট বিশ্ব এখন আই সি সি ওয়ার্ল্ডকাপ ২০১৯ এর দোড়গোড়ায়।বিশ্বকাপ শুরু হতে আর বেশি দেরি নেই। তাই সব ক্রিকেটার তাদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি নিতে ব্যাস্ত।যদিও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কিছুটা ব্যাস্ত বাংলাদেশ দল। মাত্রই তারা নিউজিল্যান্ড সফর শেষ করে দেশে ফিরেছে।এরপর আয়ারল্যান্ডে ৫ মে থেকে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ফাইনাল হবে ১৭ মে। তাই এই বিরতিতে নিজেদের জীবনের আসল ট্রফিটা জিতে নিতে ব্যাস্ত হয়ে পড়েছে বাংলাদেশী ক্রিকেটাররা। দেশে ফিরে প্রথমেই বিয়ে সেরেছেন সাব্বির রহমান। এরপর একে একে জুটি গড়ার তালিকায় আছেন বাংলাদেশের তিন ‘ম’ -মেহেদী হাসান মিরাজ ,মুস্তাফিজুর রহমান ,ও মুমিনুল হক। ক্রিকেট অঙ্গন এখন অনুষ্ঠানের আমেজে পরিপূর্ণ।

সাব্বির রহমানের বিয়ে ;

সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন ইস্যুতে বিতর্কিত সাব্বির রহমান বেশ কয়েক মাস ব্যান থাকার পর নিউজিল্যান্ড সফর দিয়ে জাতীয় দলে ফিরে আসেন।ওয়ান ডে সিরিজের শেষ ম্যাচে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করে ফর্মে থাকার ইঙ্গিত দেন।
অনেকটা চুপিসারেই বিয়ে করে ফেললেন জাতীয় দলের মারকুটে ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান। ১৬ মার্চ -শনিবার রাতেই আকদ সম্পন্ন হয়েছে সাব্বিরের। সাব্বিরের পরিবার সূত্রে জানা গেছে ,পরিবারের চাওয়াতেই নাকি তার এই বিয়ে। তার স্ত্রীর নাম অর্পা। তিনি উচ্চ মাধ্যমিকের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী।ঢাকার বাসায় দুই পক্ষের অল্প কয়েক জন কাছের আত্মীয় স্বজনের উপস্থিতিতে হয় আকদের আনুষ্ঠানিকতা। বিয়ে নিয়ে সাব্বির জানান , অনুষ্ঠান করলে সবাইকে জানানো হবে। এবং জীবনসঙ্গীকে নিয়ে সুখী হবার জন্য সবার কাছে দোয়া চাইলেন তিনি। তবে তার স্ত্রীর বয়স নিয়ে তোলপাড় শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়ায় ,অপবাদ দেওয়া হয় বাল্যবিবাহের।

মিরাজের বিয়ে ;

দীর্ঘ ছয় বছর প্রেমের পর অল্প বয়সে বিয়ের পিড়িতে বসলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অল-রাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ। অবশেষে একজন সফল প্রেমিকের মতো তাদের এতো বছরের ভালোবাসার সম্পর্কের সফল পরিণতি ঘটালেন তিনি।২১ মার্চ ,বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনার খালিশপুরের কাশিপুরে রাবেয়া আক্তার প্রীতির সাথে বিবাহ-বন্ধনে আবদ্ধ হন মিরাজ। প্রীতি খুলনার সরকারি বিএল কলেজের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী।তিনি দুই ভাইয়ের ছোট বোন। প্রীতির বাবা বেলাল হোসেন পেশায় একজন চাকরিজীবী। মিরাজ জানান,বিয়ের অনুষ্ঠান করবো আগামী বিশ্বকাপের পর। তখন সবাইকে জানানো হবে।

মুস্তাফিজের বিয়ে ;

বাংলাদেশের কার্টার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান বিয়ের শুভ কাজটি সারলেন তার বন্ধু মিরাজের বিয়ের মাত্র একদিন পর অর্থাৎ ২২মার্চ,রোজ শুক্রবার। জানা গেছে ,নিউজিল্যান্ড সফর শেষে তিনি নাকি বিয়ের কেনাকাটা করেছেন সেখানে। সম্পূর্ণ প্রস্তুতি নিয়ে সাতক্ষীরার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন। এবং মায়ের পছন্দেই বিয়ে করলেন তিনি। শুক্রবার বেলা তিনটায় সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারলেন এই বা হাতি পেসার। মুস্তাফিজের স্ত্রী শিমু তার মেজো মামা রওনাকুল ইসলামের তৃতীয় মেয়ে। আপাতত শুধু আকদ হয়েছে ,বিয়ের আসল অনুষ্ঠানটা বিশ্বকাপের পরেই হবে। এসএসসি ও এইচএসসি দুই পরীক্ষায় ‘এ প্লাস ‘পাওয়া শিমু এ বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক প্রথম বর্ষে পড়াশোনা করছেন।

মুমিনুলের বিয়ে ;

আগামী ১৯ এপ্রিল খুব ঘটা করেই বিয়ে করতে যাচ্ছেন মুমিনুল হক।কনে ফারিহা বাশার । তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ব্যাবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী। কনের বাসা মিরপুর ডিওএইচএসে। মুমিনুল জানালেন ,বিয়ের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন তারা।আমন্ত্রণপত্র বানাতে দিয়েছি।ইনশা আল্লাহ ১৯ তারিখে সব আনুষ্ঠানিকতা আমরা সেরে ফেলবো।

লাখো নারীদের হৃদয় ভেঙ্গে একের পর একের সাকিব ,তামিম,মাশরাফি,মুশফিক ,মাহমুদুল্লাহ আর এখন এই ৪ জন সুদর্শন ক্রিকেটাররা বিয়ে করে ফেললেন। শুধু বাকি থাকলো নাসির। যাইহোক এই ক্রিকেটারদের সবাইকে তাদের নতুন জীবনের জন্য শুভ কামনা রইলো।

 

Related Articles